আর্কিটেক্ট এর প্রথম সাইট ভিজিট নিয়ে আপনার যত জিজ্ঞাসা

"ভাই আমি একটা বাড়ি বানাবো অমুক জায়গায়; আপনি একটু দেখে আসবেন? তাহলে আপনার সাথে মিটিংটা মনে হয় ভালো হবে"

প্রত্যেক আর্কিটেক্ট প্রায় প্রতি সপ্তাহে কারো না কারো থেকে ফোনে এই কথাটা শোনেন। এই কথার উত্তরে সরাসরি হ্যাঁ বা না বলাটা বেশ কঠিন। খোলা চোখে দেখলে, উনি কিন্তু ঠিকই বলেছেন, সাইট দেখে এসে মিটিং করলে তো মিটিং ভালো হবেই। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে এভাবে তো যে কেউ ই আর্কিটেক্ট কে ফোন করে তার গ্রামের বাড়ি বা যেখানে খুশি পাঠাতে চাইতে পারেন। কিন্তু আপনি চেনেন না, জানেন না, এমন একজনকে আপনার বাসায় বা গ্রামে চলে যেতে বা আসতে বলাটা কি ঠিক? এই ব্যাপারে তাহলে কি করা যায়? হ্যাঁ, সেটা নিয়েই আজকের লেখা!

একজন আর্কিটেক্ট এর জন্য সাইট ভিজিট খুবই ইম্পরট্যান্ট। অনেক ব্যাপার আছে যে গুলো ছবি দেখে বা ম্যাপ দেখে পুরোপুরি বোঝা যায় না। বাড়িটা ঠিক কোনদিকে মুখ করে বানালে ভাল হবে, বাড়িটা জমির কোনদিকে বসালে ভাল হয় এসব বিষয়গুলো শুধুমাত্র সাইটে গেলেই পুরোপুরি বোঝা সম্ভব। সমস্যা হচ্ছে, একজন আর্কিটেক্ট কে আপনি সাইটে যেতে বলবেন কিভাবে?


০১। আর্কিটেক্ট কে সাইটে যেতে বলার আগে তাঁর অফিসে গিয়ে দেখা করুন

প্রথমত আর্কিটেক্ট এর সাথে আপনি সরাসরি দেখা করুন। সেখানে আর্কিটেক্ট কে আপনার প্রজেক্টের ব্রিফ দিন এবং জানতে চান সাইট ভিজিটের জন্য কি রকম কম্পেনসেশান তাকে দিতে হবে। আপনার সাইটে গেলে একজন আর্কিটেক্টের সারাদিন নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই এক বা দুই সপ্তাহ পরে একটি শিডিউল নিন এবং সম্ভব হলে নিজে সাথে যান । আর্কিটেক্টরা তাদের নিজেদের গাড়ি ব্যবহার করতেই সাধারণত পছন্দ করেন। তবুও জিজ্ঞেস করতে পারেন, আপনার গাড়িতে বা আপনার সাথে উনি যেতে চান কি না।


০২। আর্কিটেক্ট সাইটে গেলে জমির ডিমার্কেশানগুলো দেখিয়ে দিন

সাইটে পৌঁছলে প্রথমেই আর্কিটেক্ট কে দেখান কোথায় আপনি বাড়ি তৈরির চিন্তা করছেন। যদি কোথাও পুকুর থেকে থাকে, কিংবা বন্যা বা বৃষ্টিতে যদি কোথাও পানি জমে যায়, সে সব জায়গা থাকলে সেগুলো ও দেখাবেন। বাসায় কোন দিক দিয়ে গাড়ি ঢুকবে, সেটাও ফাইনাল করুন।

০৩। জমির আশপাশটা আর্কিটেক্ট কে ঘুরিয়ে দেখান

আপনার জমির আশেপাশে স্থানীয় বাজার কোথায়, বিল্ডিং ম্যাটেরিয়ালস কোথায় কি পাওয়া যায়, সেগুলো আর্কিটেক্ট কে জানান। সম্ভব হলে সাথে নিয়ে দেখিয়ে আনুন। আপনার এলাকায় বাড়ি বানানোর কোন বিশেষ স্টাইল থাকলে সেটাও দেখাতে পারেন। আপনার পছন্দের কোন বাড়ি ঐ এলাকায় থাকলে সেখানেও তাঁকে নিয়ে যেতে পারেন।


০৪। পরিচিত কনট্রাক্টর থাকলে তাকে আর্কিটেক্ট এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিন

তবে অবশ্যই আর্কিটেক্ট কে আগে এই বিষয়টা ক্লিয়ার করে রাখুন। আর্কিটেক্ট যদি দেখা না করতে চান, তাহলে কনট্রাক্টর কে সাইটে ঐ দিন ডাকার দরকার নেই। আবার ঠাস করে আর্কিটেক্ট এর ফোন নাম্বার একে-ওকে দেয়া ঠিক হবেনা। বরং আপনার সামনে কোন কনট্রাক্টর নম্বর চাইলে আপনি সেটা এড়িয়ে যেতে হেল্প করবেন।


প্রথম সাইট ভিজিট আরও বেশি ইফেক্টিভ হবে যদি ডিজাইন কিছু দূর আগানোর পর আর্কিটেক্ট আসেন। তাছাড়া শতকরা ৯৫% আর্কিটেক্ট এগ্রিমেন্ট হওয়ার আগে আপনার সাইট ভিজিট করবেন না। এ ক্ষেত্রে আপনার করনীয় কি হতে পারে? 👉 গুগল ম্যাপে আপনার সাইটের অবস্থান বের করুন 👉 সাইটের অসংখ্য ছবি তুলেন 👉 ডিজিটাল সার্ভে করুন 👉 সবকিছু একসাথে মেইল করে দিন বা সাথে নিয়ে দেখা করুন 👉 স্পেইস প্রোগ্রাম, বাজেট ইত্যাদি সহ আর্কিটেক্টদের অফিসে গিয়ে আপনার পছন্দের স্থপতিদের সাথে মিটিংগুলো শেষ করুন 👉যেই আর্কিটেক্ট বা ফার্মকে পছন্দ হয়, তাদের সাথে এগ্রিমেন্ট করুন 👉 প্রিলিমিনারি ড্রইং রেডি হলে আর্কিটেক্ট কে নিয়ে সাইটে যান


এভাবে কাজ করার অনেক অনেক সুবিধা আছে। সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে, যিনি সাইটে যাচ্ছেন, তিনি যে আপনার বাড়ি ডিজাইন করবেন সেটা আগেই কনফার্ম হয়ে থাকছে । এগ্রিমেন্টের আগে তাকে নিয়ে দৌড়াদৌড়ি করার পর যদি কাজটা উনি না করেন, বা কোন কারণে চুক্তিটা না হয়, তাহলে সবকিছুই মূল্যহীন হয়ে গেল।


আর্কিটেক্টরা সাধারণত সাইট ভিজিটের জন্য দুই ক্যাটাগরিতে চার্জ করেন: 👉 আর্কিটেক্ট এর নিজ শহরের ভেতরে 👉 আর্কিটেক্ট এর নিজ শহরের বাইরে দুই ক্ষেত্রেই কনভেয়েন্স + সাইট ভিজিট চার্জ = সার্ভিস চার্জ হয়ে থাকে।

সার্ভিস চার্জ কেমন হবে সেটা সাইটের দূরত্ব এবং যে আর্কিটেক্ট যাচ্ছেন, তাঁর অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করে। সাধারণত শহরের ভেতরে হলে ৬,০০০ - ১৫,০০০ এবং বাহিরে হলে সাইট ভিজিট ১০,০০০ থেকে ২২,০০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। তবে প্রোজেক্টের উপর ভিত্তি করে কোন আর্কিটেক্ট চাইলে প্রথম সাইট ভিজিট টা ফ্রি তেও করতে পারেন। তাই আগে কথা বলে সব ঠিক করে নিন।


ঢাকা ডিজাইনারের সাথে এপয়েন্টমেন্ট ঠিক করতে এই লিঙ্কে মেসেজ দিতে পারেন অথবা সরাসরি +8801701357825 এ কল করে এপয়েন্টমেন্ট বুক করতে পারেন।


11 views0 comments